728X90

0

0

0

এই অনুচ্ছেদে

যৌনতায় মত্ত হওয়ার আগে এই কাজগুলি এড়িয়ে যান? বিপদ ডাকছেন…
11

যৌনতায় মত্ত হওয়ার আগে এই কাজগুলি এড়িয়ে যান? বিপদ ডাকছেন…

সঙ্গীর সঙ্গে যৌনতায় লিপ্ত হচ্ছেন। কিন্তু বেসিক কিছু স্বাস্থ্যবিধি এক্কেবারে মানছেন না, যা আপনার পার্টনারকে বিরক্ত করছে। আপনারই সেই অজানা কিছু টিপস শেয়ার করলেন বিশেষজ্ঞরা।

9 personal hygiene tips for a healthy sexual life

ঘনিষ্ঠতার মধ্যে লুকিয়ে থাকে আকর্ষণের সুন্দর একটা রসায়ন। আর সেই আকর্ষণ শারীরিক ও মানসিক বন্ধনের সূক্ষ্ম ভারসাম্য বজায় রাখে। কিন্তু একটা সুস্থ যৌনজীবনের চাবিকাঠি কেবলই এই কয়েকটি বিষয় নয়। তার থেকেও অনেক বেশি করে যৌনজীবনকে সুখী এবং সুস্থ করে তুলতে পারে ব্যক্তিগত স্বাস্থ্যবিধি।

আপনার শরীরের গন্ধ, সঙ্গীকে ঘনিষ্ঠতার দিকে প্রলুব্ধ করতে পারে। সেই গন্ধ যতই আকর্ষণীয় হবে, ততই আনন্দদায়ক হবে আপনার যৌনজীবন। যদিও তা চিন্তার বিষয় নয়। কিন্তু চিন্তার বিষয়টা হল, ব্যক্তিগত স্বাস্থ্যবিধি যদি দীর্ঘ সময়ের জন্য উপেক্ষিত হয়, তাহলে সংক্রমণের সম্ভাবনা বেড়ে যায়। কিছু কিছু ক্ষেত্রে তা এতটাই ভয়ঙ্কর হয়ে যায় যে, বন্ধ্যাত্বের কারণ পর্যন্ত হতে পারে।

ব্যক্তিগত স্বাস্থ্যবিধি কীভাবে যৌনজীবন ভাল করতে পারে?

যৌন স্বাস্থ্যবিধি সম্পর্কে কিছু টিপস শেয়ার করেছেন সেক্সুয়াল ওয়েলনেস এক্সপার্ট শিবা মহসিন এবং ইন্টিমেসি কোচ রাধা সালুজা, যেগুলি আপনি হয়তো এতদিন ধরে উপেক্ষা করে আসছেন, হয়তো বা জানেনই না। সেগুলি কী?

1. ঠান্ডা জলে স্নান উত্তেজনা বাড়ায়

শিবা মহসিন বলছেন, ঠান্ডা জলে স্নান টেস্টোস্টেরনের উৎপাদন বাড়াতে পারে। আমেরিকান জার্নাল অফ মেনস হেলথ-এ প্রকাশিত একটি সমীক্ষা অনুসারে, ঠান্ডা জলে স্নান করে পুরুষদের টেস্টোস্টেরনের মাত্রা পাঁচ শতাংশ পর্যন্ত বৃদ্ধি পেয়েছে।

2. ঢিলেঢালা জামাকাপড় পড়ুন

ইন্টিমেসি কোচ রাধা সালুজার কথায়, “গরম ও প্যাচপ্যাচে ঘামে ভেজা জায়গাগুলি আসলে ব্যাকটিরিয়া এবং ইস্টের অবাধ বিচরণের ক্ষেত্র। তাই, টাইট অন্তর্বাস বা প্যান্টির চেয়ে ঢিলেঢালা সুতির কাপড় পরে যৌনতায় মগ্ন হওয়া ঢের ভাল।” তিনি আরও যোগ করে বলছেন, “হাল্কা এবং পাতলা জামাকাপড় সবসময়ই বায়ু সঞ্চালনকে সহজ করে এবং আর্দ্রতা শোষণ করে।”

শিবা মহসিন বলছিলেন, বিছানায় ঘনিষ্ঠ হওয়ার আগের মুহূর্ত পর্যন্তও অন্তর্বাস না পরাই ভাল।

3. জল খেতে থাকুন এবং মূত্রাশয় খালি রাখুন

এই দুই বিশেষজ্ঞই বলছেন, যৌনমিলনের আগে মূত্রাশয় খালি করে রাখা একটি ভাল অভ্যাস। তাঁরা জানাচ্ছেন, যে ব্যাকটেরিয়া আপনার মূত্রনালীতে প্রবেশ করে, (যে টিউবটি শরীর থেকে প্রস্রাব বহন করে) তা সংক্রমণের সম্ভাবনাও অনেকটা বাড়িয়ে দিতে পারে। আপনি যখন প্রস্রাব করছেন, তখন জীবাণুগুলিকে আপনার শরীর থেকে বের করে দিচ্ছেন। তাই, সঙ্গীকে জড়িয়ে ধরার আগেই একবার বাথরুমে ঘুরে আসুন।

মহসিন মনে করিয়ে দেন, “তবে তারপরে জল খেতে একেবারেই যেন ভুলবেন না। নিজেকে যত বেশি আপনি হাইড্রেটেড রাখবেন, তত বেশি প্রস্রাব করবেন এবং ব্যাকটেরিয়া বেরিয়ে যাবে।”

4. চুলেরও একটা ভূমিকা আছে

রাধা সালুজা বলছিলেন, “যৌনমিলনের সময় সঙ্গীরা একে অপরের শরীরের অঙ্গগুলি স্পর্শ করবেন, সেটাই তো স্বাভাবিক। কিন্তু শরীরের অধিক লোমশ এবং অপরিচ্ছন্ন অঙ্গগুলি জীবাণুদের আখড়া হয়ে যেতে পারে। তাই, চুল কাটা এবং সুন্দর ভাবে চুল ছাঁটাও অত্যন্ত জরুরি।”

মহসিন বলছেন, “যৌনকেশ বা যৌনাঙ্গের আশপাশের চুল ছেঁটে রাখা ভাল অভ্যাস ঠিকই। তবে এই পিউবিক হেয়ার বা যৌনকেশ থেকে ফেরোমোন নিঃসৃত হয়, যা সঙ্গীদের একে অপরকে আকর্ষণ করতে সাহায্য করে।”

5. যতটা সম্ভব রাসায়নিক মুক্ত থাকার চেষ্টা করুন

“ওরাল সেক্স হল, যৌন ঘনিষ্ঠতার একটি উল্লেখযোগ্য উপাদান। কিন্তু, অপরিষ্কার এবং দুর্গন্ধযুক্ত অঙ্গগুলি পার্টনারকে দ্বিধাগ্রস্ত এবং সেক্সে অনিচ্ছুক করে তুলতে পারে,” বলছেন রাধা সালুজা। শরীরের দুর্গন্ধ দূর করতে এবং যৌনমিলনের আগে আরও একটু সতেজ বোধ করতে স্নান করার পরামর্শ দিচ্ছেন তিনি।

সালুজা আরও জানাচ্ছেন, শারীরিকভাবে ঘনিষ্ঠ হওয়া আপনাকে একে অপরের শরীরের ত্বক এবং শরীরের তরলগুলির সংস্পর্শে রাখে, যাতে ভাইরাস বা ব্যাকটেরিয়া থাকতে পারে। তাই, একটি সুস্থ যৌনজীবনের জন্য বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ে নজর দিতে বলছেন তিনি।

* যৌনাঙ্গের আশপাশের এলাকা (ভিতরে নয়) হাল্কা গরম জল দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। সাবানও ব্যবহার করা যেতে পারে। তবে, সংবেদনশীল ত্বক বা আগে থেকেই কারও সংক্রমণ থাকলে, সাবানের মধ্যে থাকা রাসায়নিকগুলির সংস্পর্শে ত্বক জ্বালা করতে পারে।

* পুরুষদের পুরুষাঙ্গের বাইরের চামড়া আলতো করে টেনে তার ভিতর পর্যন্ত ভাল করে জল দিয়ে ধুয়ে ফেলতে হবে।

* অনেক মহিলাই যৌনমিলনের পরে তাঁদের যোনির ভিতরের অংশ পরিষ্কার করেন। এই প্রক্রিয়াকে ‘ডাচিং’ বলা হয়। অনেকেই হয়তো জানেন না যে, ডাচিং সংক্রমণের কারণও হতে পারে। যোনির রক্ষাকারী ব্যাকটেরিয়ার প্রাকৃতিক ভারসাম্যকে বিপর্যস্ত করে ডাচিং নামের এই প্রক্রিয়া। যৌনমিলনের পরে যোনিপথের যত্ন নেওয়ার সবথেকে ভাল উপায় হল, সেখানে কিসসু না করা। যেমন আছে, তেমনই রেখে দেওয়া। কারণ, যোনি প্রাকৃতিকভাবেই নিজেকে পরিষ্কার করে নেয়।

অত্যন্ত স্পর্শকাতর এই বিষয়ের উপরে আরও গুরুত্ব দিয়ে মহসিন বলছেন, হাল্কা গন্ধ থাকাটা খুবই স্বাভাবিক এবং এটি কোনও সমস্যার লক্ষণ না-ও হতে পারে। তাঁর কথায়, “ডাউচের পাশাপাশি প্রাইভেট পার্ট সতেজ করার জন্য অনেক ধরনের ওয়াইপ, ক্রিম ও স্প্রে পাওয়া যায়। তাদের মধ্যে এমনই কিছু কঠিন রাসায়নিক থাকে, যা আপনার ত্বককে জ্বালাতে শুরু করে।” সুগন্ধযুক্ত ট্যাম্পন, প্যাড, প্যান্টি লাইনার, পাউডার এবং স্প্রে এড়াতে হবে এবং মানুষকে আরও সতর্ক হতে হবে বলে যোগ করেছেন মহসিন।

6. সামনে থেকে পিছনে ধুয়ে নিতে হবে

“মূত্রনালীর সংক্রমণ (ইউটিআই) মহিলাদের মধ্যে সাধারণ একটা রোগ এবং তা এক্কেবারেই উপেক্ষা করা উচিত নয়,” বলছেন শিবা মহসিন। এ বিষয়ে তাঁর পরামর্শ, “এখান থেকে খুব সহজেই কিডনির সংক্রমণ ঘটতে পারে। তাই, ঘনিষ্ঠ হওয়ার আগে এবং পরে সর্বদা সামনে থেকে পিছনে ধুয়ে ফেলতে হবে, যাতে মলদ্বার থেকে জীবাণু যোনি বা মূত্রনালীতে প্রবেশ করতে না পারে।”

7. সেক্স টয়কে গুরুত্ব দিতে হবে

রাধা সালুজা বলছেন, সেক্স টয় ব্যবহারের পরে তা অতি অবশ্যই পরিষ্কার করতে হবে। এটা কিন্তু যৌন স্বাস্থ্যবিধির অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ উপাদান। সেক্স টয় অপরিষ্কার থাকলে, তাতে ছত্রাক, ভাইরাস ও ব্যাকটেরিয়া থাকতে পারে এবং সংক্রমণ বা যৌনবাহিত রোগ (এসটিডি) হতে পারে। মুম্বইয়ের এই ইন্টিমেসি কোচ আরও যোগ করে বলছেন, “যে কোনও সংক্রমণ বা রোগের জন্য নিয়মিত পরীক্ষা করা উচিত, বিশেষ করে যদি চুলকানি হতে থাকে এবং ঘন সাদা স্রাব বা জ্বলনের মতো লক্ষণ দেখা যায়।”

8. মুখে যেন দুর্গন্ধ না বেরোয়

“যৌনমিলনের সময় আপনার পার্টনারের মুখ থেকে দুর্গন্ধ বেরোলে কীরকম বিরক্ত লাগে বলুন তো! মনে রাখবেন, যৌনতার সময় অস্বস্তির অন্যতম প্রধান কারণ হল, মুখের দুর্গন্ধ। যৌনতায় লিপ্ত হওয়ার আগে আপনাকে একবার ব্রাশ করে নিতে হবে। এছাড়াও দুর্গন্ধ থেকে মুক্তির আর একটি উপায় হল, মাউথ ফ্রেশনার ব্যবহার করা বা পুদিনা চেবানো,” বলছেন রাধা সালুজা।

9. হাত ও নখ পরিষ্কার রাখুন

হায়দরাবাদের যৌন সুস্থতা বিশেষজ্ঞ শিবা মহসিনের মতে, “একটি স্বাস্থ্যকর যৌনজীবন বজায় রাখতে আপনাকে অতি অবশ্যই হাত ও নখ পরিষ্কার করে রাখতে হবে।” তিনি বলছেন, “হাত বা নখ নোংরা হলে তা থেকে ক্ষতিকর জীবাণু ছড়িয়ে পড়ার সম্ভাবনা থাকে।”

আপনার অভিজ্ঞতা বা মন্তব্য শেয়ার করুন

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

বহুল চর্চিত

প্রবন্ধ

প্রবন্ধ
দাঁত এবং মাড়ির স্বাস্থ্য খারাপ হলে সংক্রামক এন্ডোকার্ডাইটিস হতে পারে অর্থাৎ হার্ট ভালভের আস্তরণের ব্যাকটেরিয়া সংক্রমণ। 
প্রবন্ধ
যোগায় হস্তমুদ্রা শুধুমাত্র ভঙ্গিমা নয়, প্রতিটি মুদ্রার নিজস্ব স্বাস্থ্য উপকারিতা রয়েছে।
প্রবন্ধ
আপনার হৃদয় যে সুস্থ আছে তা জানান দেওয়ার পূর্বলক্ষণ হল HDL কোলেস্টেরলের সঠিক  মাত্রা। আমরা খুঁজে দেখব কেন HDL -কে 'ভাল কোলেস্ট্রল' বলা হয়
প্রবন্ধ
কড়া এড়াতে নিয়মিত পা পরিষ্কার করা এবং ময়শ্চারাইজিং করাও দরকার। পা পরিষ্কার থাকলে, কেলাস তৈরি হলেও, কর্ণ বা কড়ায় পরিণত হওয়ার আগেই তা চলে যায়। 
প্রবন্ধ
প্রাণায়ামের সঠিক পদ্ধতির মধ্যে লুকিয়ে আছে সুস্থ জীবনের চাবিকাঠি। শুধুমাত্র সঠিক শ্বাস-প্রশ্বাসের এই পদ্ধতি হতে পারে অনেক সমস্যাকে দূর করার সহজ কৌশল। আসুন জেনে নিন বিশদে এই বিষয়টি সম্পর্কে এখানে ক্লিক করে।
প্রবন্ধ
মধুমেহ সমস্যায় যারা ভুগছেন তাঁদের পুজোয় সঠিক পরিমাণে প্রোটিন এবং ফাইবার জাতীয় খাবার খাওয়া উচিত সাথে কার্বোহাইড্রেট জাতীয় খাবার যেমন সাদা ভাত খাওয়া থেকে বিরত থাকতে হবে।

0

0

0

Opt-in To Our Daily Newsletter

* Please check your Spam folder for the Opt-in confirmation mail

Opt-in To Our
Daily Newsletter

We use cookies to customize your user experience, view our policy here

আপনার প্রতিক্রিয়া সফলভাবে জমা দেওয়া হয়েছে.

হ্যাপিস্ট হেলথ টিম যত তাড়াতাড়ি সম্ভব আপনার কাছে পৌঁছাবে।